সোমবার, অক্টোবর 25, 2021
সোমবার, অক্টোবর 25, 2021
HomeFact Checksগুজরাটে মুসলিম সম্প্রদায় ধুমধাম করে গনেশ চতুর্থী পালন করেছে? পুরোনো ভিডিও বিভ্রান্তিকর...

গুজরাটে মুসলিম সম্প্রদায় ধুমধাম করে গনেশ চতুর্থী পালন করেছে? পুরোনো ভিডিও বিভ্রান্তিকর দাবি সমেত ভাইরাল ফেসবুকে

কিছু দিন আগে মহারাষ্ট্র সমেত সারা দেশের পালিত হয়েছে গণেশের আরাধনা আর সেই আবহে ভাইরাল হয়েছে একটি দাবি যে বলা হচ্ছে এই বছর গুজরাটে মুসলিম সম্প্রদায় ধুমধাম করে গণেশ চতুর্থী পালন করেছে। ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে ফেজ টুপি পরা কিছু মুসলিম যুবক গাড়িতে করে গণেশ মূর্তি এনে, তাকে আসনে বসিয়ে মহা সমারোহে পুজো অর্চনা করছে। শুধু মুসলিম না হিন্দুরা সামিল হয়েছে এই পুজোতে। আরতির থালা হাতে সিদ্ধিদাতার পুজো করতে দেখা যাচ্ছে ভিডিওতে।

গুজরাটে মুসলিম সম্প্রদায় ধুমধাম করে গনেশ চতুর্থী পালন করেছে image 1
Facebook Post link 1
গুজরাটে মুসলিম সম্প্রদায় ধুমধাম করে গনেশ চতুর্থী পালন করেছে image 2
Facebook Post Link 2
গুজরাটে মুসলিম সম্প্রদায় ধুমধাম করে গনেশ চতুর্থী পালন করেছে image 3
Facebook Post Link 3

এই ভিডিওটি পোস্ট করে সাথে দাবি করা হয়েছে অন্য ধর্মের হয়েও হিন্দু ধর্মের দেবতার আরাধনা করার কারণ হলো এই যুবকেরা মনে করে তাদের পূর্বপুরুষরা হিন্দু ছিলেন। ভিডিওটিতে ২ হাজারের মতো লাইক ও এবং একে ৫৪ হাজারেরও বেশি বার দেখা হয়েছে।

Fact-check / Verification

ছত্রপতি শিবাজী সর্বপ্রথম মহারাষ্ট্রে সিদ্ধিদাতা গণেশের পুজো শুরু করেছিলেন, সেই ঐতিহ্য মেনে আজও সারা মহারাষ্ট্র মেতে ওঠতে গণেশ চতুর্থীর পুজোয়। পশ্চিমবঙ্গ যেমন বিখ্যাত শারদ উৎসবের জন্য, মহারাষ্ট্রতে তেমনি বিখ্যাত গণেশ বন্দনা। প্রতি বছর গণেশ চতুর্থীর সময় মুম্বাইতে বৃষ্টি হয়, তবুও সেই বৃষ্টি জল উপেক্ষা করে মানুষ মেতে ওঠে গণপতির আরাধনায়। আর এই পুজো শুধু মাত্র মহারাষ্ট্রেই হয় তা নয়, সারার ভারতে সাড়ম্বরে পালিত গণপতির পূজা-অর্চনা। আর এই আবহে ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে গুজরাটে মুসলিম সম্প্রদায় ধুমধাম করে গনেশ চতুর্থী পালন করেছে দাবি সমেত একটি ভিডিও। আসলেই কি এই বছর পালিত হয়েছে নাকি অন্য বছরের ভিডিওটি এটি জানার জন্য আমরা অনুসন্ধান শুরু করি।

গুজরাটে মুসলিম সম্প্রদায় ধুমধাম করে গনেশ চতুর্থী পালন করেছে- পুরোনো ভিডিও বিভ্রান্তিকর সমেত ভাইরাল

ভাইরাল ভিডিওতে বলা হয়েছে গুজরাটের আহমেদাবাদের ঘটনা এটি, সেই সূত্র ধরে আমরা গুগলে কীওয়ার্ড দিয়ে খোঁজার পর জানতে পারি ২০১৩ সালের ভিডিওটি বর্তমানে ফেসবুকে অপ্রাসঙ্গিক দাবি সমেত ভাইরাল হয়েছে। গুজরাটে মুসলিম সম্প্রদায় ধুমধাম করে গনেশ চতুর্থী পালন করেছে এই দাবি সমেত যে ভিডিওটি ভাইরাল হয়েছে সেটি Janodunia নামের চ্যানেলের এবং আসল ভিডিওটি আমরা খুঁজে পাই ইউটুউব থেকে। ২০১৩ সালে ১০ই সেপ্টেম্বর মাসে এই ভিডিওটি ইউটুউবে আপলোড করা হয়েছিল।

DNA এর ২০১৩ সালের প্রকাশিত রিপোর্ট অনুসারে আহমেদাবাদের আসলাম মানসুরি নামের এক মুসলিম যুবক তার গ্যারাজে পাঁচ বছর ধরে গণেশ চতুর্থী পালন করে আসছে। মানসুরি জানিয়েছে সে যেমন আল্লাহতে বিশ্বাসী তেমনি, শ্রীকৃষ্ণ, সিদ্ধিদাতা গণেশেও বিশ্বাসী। ছোট থেকে সে আহমেদাবাদের হিন্দু পাড়াতে থাকতো, সেখানে তার অন্যান্য হিন্দু বন্ধুদের গণেশ চতুর্থী পালন করতে দেখতো। সেই থেকে তারও মনে বাসনা হয় গণপতির সেবা করার। প্রতি বছর প্রায় ২৫হাজার টাকার মতো খরচ করে ধুমধাম করে দশদিন ধরে গণেশের আরাধনা করে মানসুরি।

গুজরাটে মুসলিম সম্প্রদায় ধুমধাম করে গনেশ চতুর্থী পালন করেছে image 5
DNA News

অর্থাৎ ফেসবুকে ভাইরাল গুজরাটে মুসলিম সম্প্রদায় ধুমধাম করে গনেশ চতুর্থী পালন করেছে দাবির ভিডিওটি আসলে ২০১৩ সালের। আমাদের অনুসন্ধানে প্রমাণিত হয়েছে এই ভাইরাল ভিডিওটির সাথে বলা হয়েছে যে এই পূর্বপুরুষ হিন্দু ছিল বলে নিজে মুসলিম হয়েও এরা প্রত্যেকে গণেশের পুজোয় মেতে উঠেছে এই দাবিটিও মিথ্যে।

Conclusion

গুজরাটে মুসলিম সম্প্রদায় ধুমধাম করে গনেশ চতুর্থী পালন করেছে এই দাবিতে ভাইরাল হওয়া ভিডিওটিকে নিয়ে আমরা অনুসন্ধান করার সময় জানতে পারি আসলে ২০১৩ সালের ভিডিওতে। যে ব্যক্তিকে দেখা যাচ্ছে ভিডিওতে তার নাম আসলাম মানসুরি যে গত পাঁচ বছর ধরে গণেশ চতুর্থী পালন করে আসছে। বর্তমানে এই ভিডিওটি বিভ্রান্তিকর দাবি সমেত ভাইরাল হয়েছে।

Result- Misleading

Our sources

DNA – https://www.dnaindia.com/ahmedabad/report-lord-ganesha-finds-home-in-aslam-s-garage-1886749

Jagodunia – https://www.youtube.com/watch?v=KEMc5sqrx3g

সন্দেহজনক কোনো খবর ও তথ্য সম্পর্কে আপনার প্রতিক্রিয়া জানাতে অথবা সত্যতা জানতে আমাদের লিখে পাঠান checkthis@newschecker.in অথবা whatsapp করুন- 9999499044 এই নম্বরে। এছাড়াও আমাদের সাথে Contact Us -র মাধ্যমে যোগাযোগ করতে পারেন ও ফর্ম ভরতে পারেন ।

Paromita Das
With a penchant for reading, writing and asking questions, Paromita joined the fight to combat and spread awareness about fake news. Fact-checking is about research and asking questions, and that is what she loves to do.

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Most Popular