বুধবার, মে 18, 2022
বুধবার, মে 18, 2022

HomeFact Checkভারতের জনসংখ্যা চীনের থেকেও ছাপিয়ে গেছে প্রকৃতপক্ষ্যে একটি ভুল দাবি

ভারতের জনসংখ্যা চীনের থেকেও ছাপিয়ে গেছে প্রকৃতপক্ষ্যে একটি ভুল দাবি

সম্প্রতি টুইটারে কিছু পোস্টে দাবি করা হয়েছে যে ভারতের জনসংখ্যা চীনের থেকেও ছাপিয়ে গেছে। টুইটের পোস্টে ভারতের জনসংখ্যার যে সংখ্যাটি দেওয়া হয়েছে তা হলো ১,৪১৫,৬৫৩,৮২১ যা রেকর্ড করা হয়েছে ৪ঠা মার্চ ২০২২ এ।

সম্প্রতি চীনের জনসংখ্যার বৃদ্ধির হার কমে গেছে যার ফলে হতে পারে চীনের বদলে আবার ভারত বিশ্বের সব থেকে অধিক জনসংখ্যা দেশের শিরোপা পাবে। সারা বিশ্বের লোকসংখ্যার মধ্যে ৩৬ শতাংশই আসে চীন ও বা ভারতের থেকে। মিডিয়াতে নানা রকম বিভ্রান্তিকর দাবি ছড়ায় যখন এই তথ্যটি সামনে আসে যে আর কিছু বছরের মধ্যে ভারতের জনসংখ্যা চীনের থেকেও বেশি হয়ে যাবে। যদিও ভারতীয়দের জনসংখ্যার বিষয়ের উপর একটি রিপোর্টে বলা হয়েছে জাতীয় পরিবার স্বাস্থ্য সমীক্ষা (NFHS) এর তথ্য বলছে ভারতে বাচ্চা ধারণের মাত্রা আগের থেকে ২.০ এর নিচে নেমে গেছে।

Fact check / Verification

ভারতের জনসংখ্যা চীনের থেকেও ছাপিয়ে গেছে এই দাবিটির সত্যতা যাচাই করার জন্য আমরা কীওয়ার্ড দ্বারা গুগলে অনুসন্ধান শুরু করি কিন্তু এই দাবীটিকে সত্যি প্রমাণিত করবে এই ধরণের কোনো রিপোর্ট বা তথ্য আমরা পাইনি।

আমরা Hindustan Times এর ৪ঠা জানুয়ারি ২০২২ সালের একটি রিপোর্ট পাই যেখানে বলা হয়েছে কোভিড-১৯ এর কারণের প্রতি ১০ বছর পর পর ভারতের আদমশুমারি গণনা স্থগিত করা হয়েছে। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের থেকে এই নির্দেশ এসে বলে জানা গেছে এবং পরবর্তী কোন বছর এই জনগণনা শুরু হবে তা কেন্দ্রীয় মন্ত্রকের তরফ থেকে জানানো হবে।

ভারতের জনসংখ্যা চীনের থেকেও ছাপিয়ে গেছে image 1

আমরা জানতে পারি টুইটারে ভারতের জনসংখ্যা চীনের থেকেও ছাপিয়ে গেছে এই দাবিটি MediIndia নামের একটি ওয়েবসাইটের তথ্যকে কেন্দ্র করে ছড়িয়েছে। আমরা যখন সরাসরি এই সংস্থাটির সাথে যোগাযোগ করি এবং জানতে চাই এই তথ্যটি ওনারা কোথা থেকে পেয়েছে। কিন্তু এই বিষয়ের উপর আমরা কোনো উত্তর পাইনি। বলে রাখি এই মেডিইন্ডিয়ার তথ্যে বলা হয়েছে ভারতের জন্মের হার ১০০০ জনের মধ্যে ১৯.৩% ও মৃত্যুর হার ৭.৩. যেখানে সেন্ট্রাল ব্যুরো অফ হেলথ ইন্টেলিজেন্স এর ২০২১ সালের তথ্য অনুসারে ভারতে জন্মের হার ১৯.৭ % ও মৃত্যুর হার ৬।

ভারতের জনসংখ্যা চীনের থেকেও ছাপিয়ে গেছে image 2

আমাদের অনুসন্ধানে আমরা United Nations Population Fund এর তথ্য অনুসারে ২০২১ এর শেষ জনগণনাতে উঠে এসেছে যে চীনের জনসংখ্যা ১,৪৪৪.২ কোটি ও ভারতের ১,৩৯৩.৪ কোটি।

ভারতের জনসংখ্যা চীনের থেকেও ছাপিয়ে গেছে এই দাবিটি বিভ্রান্তিকর

এছাড়াও আমরা CNN ও চীনের প্রধান সংবাদ মাধ্যম Global Times এর রিপোর্ট পাই। CNN এর ২০১৯ সালের ১৯ June এর রিপোর্টে বলা হয়েছে জাতিসংঘের ২০১৯ সালের তথ্য অনুসারে ভারত ২০২৭ সালের মধ্যে বিশ্বের সব থেকে বেশি জনসংখ্যার দেশ চীনকেও ছাপিয়ে যাবে।

ভারতের জনসংখ্যা চীনের থেকেও ছাপিয়ে গেছে image 3

চীনের সংবাদ মাধ্যম Global Times যদিও এই দাবীটিকে নস্যাৎ করেছে যে এর মধ্যেই ভারতের জনসংখ্যা চীনের থেকেও ছাপিয়ে গেছে এই দাবিটি বিভ্রান্তিকর। ২০২২ এর ৭যে মার্চের প্রকাশিত রিপোর্টে O.P. Jindal Global University র অধ্যাপক Huang Yinghong বলেছেন ‘ দুটি জনসংখ্যার তুলনা করা তখনই অর্থবহ যদি তারা একই পরিসংখ্যান পদ্ধতি ব্যবহার করে গণনা করা হয়’ .

ভারতের জনসংখ্যা চীনের থেকেও ছাপিয়ে গেছে image 4

Conclusion

আমাদের অনুসন্ধানে প্রমাণিত হয়েছে ভারতের জনসংখ্যা চীনের থেকেও ছাপিয়ে গেছে এই দাবিটি বিভ্রান্তিকর। এখনও ভারত চীনের জনসংখ্যার থেকে পিছিয়ে আছে।

Result: False/ Fabricated

Our Sources

Hindustan Times- https://www.hindustantimes.com/india-news/census-activities-postponed-amid-covid-surge-101641232471939.html

Medindia website- https://www.medindia.net/patients/calculators/pop_clock.asp

Central Bureau of Health Intelligence website- https://www.cbhidghs.nic.in/showfile.php?lid=1160

UNFPA website- https://www.unfpa.org/data/world-population/IN
https://www.unfpa.org/data/world-population/CN

CNN Health- https://www.cnn.com/2019/06/19/health/india-china-world-population-intl-hnk/index.html

Global Times- https://www.globaltimes.cn/page/202203/1254246.shtml


সন্দেহজনক কোনো খবর ও তথ্য সম্পর্কে আপনার প্রতিক্রিয়া জানাতে অথবা সত্যতা জানতে আমাদের লিখে পাঠান [email protected] অথবা whatsapp করুন- 9999499044 এই নম্বরে। এছাড়াও আমাদের সাথে Contact Us -র মাধ্যমে যোগাযোগ করতে পারেন ও ফর্ম ভরতে পারেন ।

Paromita Das
Paromita Das
With a penchant for reading, writing and asking questions, Paromita joined the fight to combat and spread awareness about fake news. Fact-checking is about research and asking questions, and that is what she loves to do.
Paromita Das
Paromita Das
With a penchant for reading, writing and asking questions, Paromita joined the fight to combat and spread awareness about fake news. Fact-checking is about research and asking questions, and that is what she loves to do.

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Most Popular