সোমবার, মে 16, 2022
সোমবার, মে 16, 2022

HomeFact Checkফেসবুকে চিকিৎসা ও বেকারত্বকে কেন্দ্র করে মোদি সরকারের বিরুদ্ধে আক্রমণাত্মক পোস্টে ছড়ালো...

ফেসবুকে চিকিৎসা ও বেকারত্বকে কেন্দ্র করে মোদি সরকারের বিরুদ্ধে আক্রমণাত্মক পোস্টে ছড়ালো পৃথক রাজ্যের ছবি

ফেসবুকে চিকিৎসা ও বেকারত্বকে কেন্দ্র করে মোদি সরকারের বিরুদ্ধে আক্রমণাত্মক পোস্ট করেছে মমতা ব্যানার্জী সাপোর্টার্স নামের একটি অনুগামী পেজ। যেখানে ২০১৭ ও ২০২২ সালের দুটি ঘটনার ছবি দেওয়া হয়েছে। একজন ব্যক্তি ও একটি ছোট্ট মেয়েকে দেখা যাচ্ছে প্রথম ছবিতে। এই ছবিটিকে ঘিরে দাবি করা হয়েছে যে এই ঘটনাটি ২০১৭ সালের ব্যক্তির নাম বলা হয়েছে দানা মাজি যার কাঁধে রয়েছে তার মৃত স্ত্রীর দেহ। দানা মাজির সাথে তার ১২ বছরের মেয়ে চাদঁনীও সাথে ছিল। দ্বিতীয় ছবিতে বলা হয়েছে ২০২২ সালের ঘটনা যেখানে শবদেহের জন্য গাড়ি না পেয়ে স্থানীয় ঈশ্বর দাস নামের এক পিতা ১০কিলোমিটার তার মেয়ের মৃতদেহ কাঁধে করে গ্রামে পৌঁছেছে। এই দুটি ঘটনার জন্য দায়ী করা হয়েছে নরেন্দ্র মোদির সরকারকে। কারণ এই সরকার চিকিৎসা ব্যবস্থায় উন্নতি, বেকারত্বের সমাধানের বদলে মন্দির মসজিদ এই বিষয়গুলোকে নিয়ে ব্যস্ত।

ফেসবুকে চিকিৎসা ও বেকারত্বকে কেন্দ্র করে মোদি সরকারের বিরুদ্ধে আক্রমণাত্মক  image 1
Courtesy: Facebook / didisupporters
ফেসবুকে চিকিৎসা ও বেকারত্বকে কেন্দ্র করে মোদি সরকারের বিরুদ্ধে আক্রমণাত্মকimage 2
Courtesy: Facebook / roni.sarkar.7982

Fact check / Verification

ফেসবুকে চিকিৎসা ও বেকারত্বকে কেন্দ্র করে মোদি সরকারের বিরুদ্ধে আক্রমণাত্মক পোস্টে যে দুটি ছবি দেওয়া হয়েছে সেটি বিজেপি শাসিত রাজ্যের কিনা বা দুটি ছবি একেই স্থানের কিনা জানার জন্য আমার ছবি দুটির রিভার্স ইমেজ করি। প্রথম ছবিটি ওড়িশার। ২০১৬ সালের ওড়িশার কালাহান্ডির মেলাঘর গ্রামের দানা মাঝি (Dana Majhi Odisha) তার অসুস্থ স্ত্রীকে স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যায় চিকিৎসার জন্য, কিন্তু সেই যাত্রায় তিনি তার স্ত্রীকে বাঁচিয়ে ফেরাতে পারেননি। এমনকি মৃতদেহ নিয়ে যাওয়ার মতো প্রয়োজনীয় ব্যবস্থাও ছিল না তাই প্রায় ১০ কিলোমিটার রাস্তা তাকে তার স্ত্রীকে কাঁধে করে ফিরতে হয়ে, সঙ্গী ছিল তার ১২ বছরের মেয়ে। এই ঘটনা গোটা দেশে আলোড়ন ফেলে দিয়েছিলো। সেই সময় ওড়িশাতে নবীন পট্টনায়েকের বিজু জনতা দল পার্টির সরকার ছিল। প্রশ্ন উঠেছিল মুখ্যমন্ত্রী পট্টনায়েক ও তার রাজ্যের স্বাস্থ্য ব্যবস্থা নিয়ে।

ফেসবুকে চিকিৎসা ও বেকারত্বকে কেন্দ্র করে মোদি সরকারের বিরুদ্ধে আক্রমণাত্মক image 3

২০০০ সালে ওড়িশাতে আসে নবীন পট্টনায়েকের বিজু জনতা দল, কিন্তু সরকারের পরিবর্তন হলেও পরিবর্তন হয়নি দানা মাঝিদের মতো প্রত্যন্ত গ্রামে থাকা নূন্যতম পরিষেবা বিহীন মানুষদের। কালাহান্ডির উপজাতি দানা মাজির ঘটনা সামনে আসার পর PMO থেকে ওড়িশা সরকার ও কালাহান্ডি অঞ্চলের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্তাদের থেকে এই ঘটনার কারণ জানতে চাওয়া হয়েছিল। জানা গিয়েছে দানা মাঝির সামর্থ ছিল না কোনো শববাহী গাড়ির ব্যবস্থা করার এবং সেই সময় তাকে সাহায্য করার মতো কালাহান্ডি জেলা হাসপাতাল কর্তৃপক্ষও কোনো ব্যবস্থা নেয়নি।

অন্যদিকে ফেসবুকে চিকিৎসা ও বেকারত্বকে কেন্দ্র করে মোদি সরকারের বিরুদ্ধে আক্রমণাত্মক পোস্টে দ্বিতীয় ছবিটি ছত্তিশগড়ের। সম্প্রতি ছত্তিশগড়ের সুরগুজা জেলার লক্ষণপুর গ্রামের ঘটনার ভিডিও ভাইরাল হয়েছে যেখানে ঈশ্বর দাস (Ishwar Das Chhattisgarh) নামের এক ব্যক্তি তার সাত বছরের মৃত মেয়েকে কাঁধে চাপিয়ে(Chhattisgarh man carries his dead daughter body) প্রায় ১০কিলোমিটার রাস্তা হেঁটে নিজের গ্রামে ফেরে। ঈশ্বর ও ওনার সাথে থাকা পরিবারের লোকজনদের দাবি শুক্রবার সকালে তাদের মেয়ে মারা যায়। কিন্তু অনেক্ষন দাঁড়িয়ে থাকার পরেও কোনো গাড়ি তারা পায়নি তাই তারা হেঁটেই বাড়ি ফেরে।

ফেসবুকে চিকিৎসা ও বেকারত্বকে কেন্দ্র করে মোদি সরকারের বিরুদ্ধে আক্রমণাত্মক  image 4

যদিও এই দাবিকে নস্যাৎ করেছে লক্ষনপুরের স্বাস্থ্যকেন্দ্রের কর্তারা। তাদের মতে ঈশ্বর দাসকে জানানো হয়েছিল গাড়ি কিছুক্ষনের মধ্যেই এসে পড়বে। কিন্তু তারাই অপেক্ষা না করে মৃতদেহ নিয়ে চলে যায়। বর্তমানে ছত্তিশগড়ে জাতীয় কংগ্রেসের সরকার স্থাপিত রয়েছে এবং মুখ্যমন্ত্রী হয়েছেন ভুপেশ বাঘেল। ঈশ্বর দাসের ভিডিওটি ভাইরাল হওয়ার পর ছত্তিসগড়ের স্বাস্থ্যমন্ত্রী TS Singh Deo এই ঘটনার তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন।

ফেসবুকে চিকিৎসা ও বেকারত্বকে কেন্দ্র করে মোদি সরকারের বিরুদ্ধে আক্রমণাত্মক পোস্টে পৃথক রাজ্যের ছবি ব্যবহার করা হলো

অনুসন্ধানে জানতে পেরেছি যে ফেসবুকে মমতা ব্যানার্জী সাপোর্টার্স নামের পেজ থেকে চিকিৎসা ও বেকারত্বকে কেন্দ্র করে মোদি সরকারকে বিরুদ্ধে আক্রমণাত্মক পোস্টে ওড়িশা ও ছত্তিশগড়ের ছবি ব্যবহার করা হয়েছে। এই দুটি রাজ্যে ভারতীয় জনতা পার্টির সরকার স্থাপিত নয়।

Conclusion

আমাদের পর্যবেক্ষণের দ্বারা জানতে পারি ফেসবুকে মমতা ব্যানার্জী সাপোর্টার্স নামের পেজ থেকে চিকিৎসা ও বেকারত্বকে কেন্দ্র করে মোদি সরকারের বিরুদ্ধে আক্রমণাত্মক পোস্টে দুটি ছবি ব্যবহার করেছে যেখানে দুজন ব্যক্তিকে কাঁধে করে শবদেহ বয়ে আনতে দেখা যাচ্ছে, এবং দাবি করা হয়েছে ঘটনাটি দুটি একই গ্রামের। কিন্তু প্রকৃত পক্ষে ছবি দুটি একটি ওড়িশার একটি ছত্তিশগড়ের।

Result: Misleading


সন্দেহজনক কোনো খবর ও তথ্য সম্পর্কে আপনার প্রতিক্রিয়া জানাতে অথবা সত্যতা জানতে আমাদের লিখে পাঠান [email protected] অথবা whatsapp করুন- 9999499044 এই নম্বরে। এছাড়াও আমাদের সাথে Contact Us -র মাধ্যমে যোগাযোগ করতে পারেন ও ফর্ম ভরতে পারেন ।

Paromita Das
Paromita Das
With a penchant for reading, writing and asking questions, Paromita joined the fight to combat and spread awareness about fake news. Fact-checking is about research and asking questions, and that is what she loves to do.
Paromita Das
Paromita Das
With a penchant for reading, writing and asking questions, Paromita joined the fight to combat and spread awareness about fake news. Fact-checking is about research and asking questions, and that is what she loves to do.

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Most Popular