মঙ্গলবার, মে 17, 2022
মঙ্গলবার, মে 17, 2022

HomeFact CheckReligionহিজাব কাণ্ডের পর মুসকানকে ভারতীয় পুলিশ সর্বোচ্চ সম্মান জানিয়েছে? সোশ্যাল মিডিয়াতে অপ্রাসঙ্গিক...

হিজাব কাণ্ডের পর মুসকানকে ভারতীয় পুলিশ সর্বোচ্চ সম্মান জানিয়েছে? সোশ্যাল মিডিয়াতে অপ্রাসঙ্গিক খবর হিজাব বিতর্কের আবহে ছড়ালো

কর্ণাটকের হিজাব বিতর্কের আবহে একটি ভিডিও ও পোস্ট সোশ্যাল মিডিয়াতে ভাইরাল হয়েছে যেখানে দাবি করা হয়েছে হিজাব কাণ্ডের পর মুসকানকে ভারতীয় পুলিশ সর্বোচ্চ সম্মান জানিয়েছে। সোশ্যাল মিডিয়াতে যে ছবিটি ভাইরাল হয়েছে সেখানে দেখা যাচ্ছে সাদা হিজাব পড়া একটি মেয়েকে এক পুলিশ আধিকারিক একটি পদক দিচ্ছে। এই ছবিটি পেছনে মহারাষ্ট্র পুলিশ কথাটি আমরা দেখি।

মুসকানকে ভারতীয় পুলিশ সর্বোচ্চ সম্মান জানিয়েছে image 1
Courtesy: Facebook / MD Sabuj Naim
মুসকানকে ভারতীয় পুলিশ সর্বোচ্চ সম্মান জানিয়েছে image 2
Courtesy: Facebook / Sabbir Rahman
মুসকানকে ভারতীয় পুলিশ সর্বোচ্চ সম্মান জানিয়েছে image 3
Courtesy: Facebook / MD SK Ripon Khan

ফেসবুকে একই দাবিতে শেয়ার হওয়া ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে পুলিশের গাড়িতে করে মেয়েটিকে নিয়ে আসা হয় এবং তারপর তাকে ওই থানার পুলিশ সম্মান প্রদর্শন করে। এরপর তাকে থানার দ্বায়িত্বে থাকা সমস্ত পুলিশ কর্মীদের সাথে পরিচয় করানো হয়। পরিচয় পর্বের পর তাকে তার চেয়ারে বসানো হয় এবং উর্দ্ধতন আধিকারিকদের সাথে ছবিও তোলা হয়।

মুসকানকে ভারতীয় পুলিশ সর্বোচ্চ সম্মান জানিয়েছে image 4
Courtesy: Facebook / Kausar Hossain

মুসকানকে ভারতীয় পুলিশ সর্বোচ্চ সম্মান জানিয়েছে image 5
Courtesy: Facebook / Hasan Mahmud Rubel

টুইটারের থেকে আমরা এই দাবিতে একটি পোস্ট পাই।

Sharechat থেকেও আমরা এই ভিডিওটি পাই যেখানে বলা হয়েছে এই ভিডিওটি কর্ণাটক রাজ্যের। ভারতের ইসলামিক বাঘিনী মুসকান খানকে অবশেষে কর্ণাটক পুলিশের তরফ থেকে সম্মান জানানো হলো।

কর্ণাটকের হিজাব বির্তকের আবহে ভাইরাল হওয়া এই দাবিটিতে যে মেয়েটিকে দেখা যাচ্ছে তাকে হিজাব পরিহিতি অবস্থায় দেখা যাচ্ছে। হিজাব খ্যাত মুসকান খানকে নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়াতে বেশ কিছু পোস্ট ভাইরাল হয়েছে যা আমাদের পর্যবেক্ষবে বিভ্রান্তিকর ও মিথ্যে প্রমাণিত হয়েছে।

Fact check / Verification

হিজাব কাণ্ডের পর মুসকানকে ভারতীয় পুলিশ সর্বোচ্চ সম্মান জানিয়েছে এই দাবিতে যে ভিডিওটি ভাইরাল হয়েছে তাতে একটি লেখা আমরা দেখিয়ে। এখানে বলা হয়েছে আন্তর্জাতিক নারী দিবসের দিন মহারাষ্ট্রের বুলধানা জেলায় ‘একদিনের’ জন্য পুলিশের DSP নিযুক্ত হলো বছর চোদ্দোর এক কিশোরী। অর্থাৎ এই ঘটনাটি মুসকান বা হিজাব কোনোটির সাথেই সম্পর্কিত নয়।

মুসকানকে ভারতীয় পুলিশ সর্বোচ্চ সম্মান জানিয়েছে image 7

এই সূত্র ধরে গুগলে খোঁজার পর আমরা Times of India র একটি ভিডিও পাই।

Times of Indiaর ইউটুউব চ্যানেলে ২০২০ সালের ৬ই মার্চে আপলোড করা এই ভিডিওর বর্ণনাতে বলা হয়েছে আসন্ন আন্তর্জাতিক নারী দিবস উপলক্ষ্যে মহারাষ্ট্রের বুলধানা পুলিশের তরফ থেকে বছর চোদ্দোর শাহিরিশ কানওয়াল একদিনের জন্য পুলিশের ডিসপি নিযুক্ত হয়। জানা গেছে মালিকাপুরের তহসিলের জেলা পরিষদের উর্দু স্কুলের শাহরিশ মহিলা ও শিশুদের উপর দীর্ঘদিন ধরে চলা অত্যাচারের বিষয়ের নিস্পত্তি করে এবং ভবিষ্যতেও কোনো ধরণের খারাপ পরিস্থিতির সামনে পড়লে প্রতিটি মেয়ে যেন নিজের সাহস ও মনোবল দিয়ে তার মোকাবিলা করে সেই বিষয়ে সাহস জোগানো লক্ষ্য হয় শাহিরিশের। এক সপ্তাহব্যাপী এই কর্মসূচির মধ্যে মেয়েদের পুলিশি শাসনকাজ কি ভাবে সম্পন্ন হয় এবং অন্যান্য সমস্যা জনক বিষয়ে কি ভাবে জানাতে হয় তা অর্ন্তুভুক্ত ছিল। এর উদ্যোক্তা ছিলেন সুমন চন্দ্র।

হিজাব কাণ্ডের পর মুসকানকে ভারতীয় পুলিশ সর্বোচ্চ সম্মান জানিয়েছে দাবিটি সম্পূর্ণ মিথ্যে

TOI ছাড়াও আমরা বুলধানা জেলা পুলিশের ট্যুইট পাই। ৪ঠা মার্চ ২০২০ সালের এই ট্যুইটে লেখা হয়েছে শাহিরিশ কানওয়ালের ইচ্ছা পুলিশের সুপারিন্টেন্ডেন্ট হওয়ার ইচ্ছা এবং একদিনের জন্য DSP হওয়ার দিনটি তাই তার কাছে খুব বিশেষ দিন ছিল।

হিজাব কাণ্ডের পর মুসকানকে ভারতীয় পুলিশ সর্বোচ্চ সম্মান জানিয়েছে এই দাবিতে ভাইরাল মালিকাপুরের শাহরিশের ছবি ২০২০ সালেই অন্য দাবি সমেত ভাইরাল হয়েছিল। The Print এর রিপোর্ট অনুসারে মহারাষ্ট্রের প্রথম মুসলিম মহিলা পুলিশ সুপারিন্টেন্ডেন্ট নিযুক্ত হয়েছে যে নিয়োগের প্রথম দিনকেই পরিধানের নিয়ম ভেঙ্গে হিজাব পরে কাজে যোগদান করে।

মুসকানকে ভারতীয় পুলিশ সর্বোচ্চ সম্মান জানিয়েছে image 8
Courtesy: The Print

Conclusion

আমাদের অনুসন্ধানে প্রমাণিত হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়াতে হিজাব কাণ্ডের পর মুসকানকে ভারতীয় পুলিশ সর্বোচ্চ সম্মান জানিয়েছে এই দাবিতে যে ছবি ও ভিডিওটি ভাইরাল হয়েছে তা সম্পূর্ণ অপ্রাসঙ্গিক। ২০২০ সালে মহারাষ্ট্রের বুলধানা জেলায় মুসলিম কিশোরীর একদিনের ডিসপি হওয়ার ছবি হিজাব কাণ্ডের আবহে ভাইরাল হয়েছে।

Result: False Conncetion

Our sourses

Times of India – https://www.youtube.com/watch?v=IAMc1cmnprk

Buldhana Police – https://twitter.com/buldhanapolice1/status/1235204438534455296

The Print – https://theprint.in/hoaxposed/hijab-clad-girl-in-viral-photo-with-maharashtra-police-is-not-breaking-any-dress-code/495621/


সন্দেহজনক কোনো খবর ও তথ্য সম্পর্কে আপনার প্রতিক্রিয়া জানাতে অথবা সত্যতা জানতে আমাদের লিখে পাঠান [email protected] অথবা whatsapp করুন- 9999499044 এই নম্বরে। এছাড়াও আমাদের সাথে Contact Us -র মাধ্যমে যোগাযোগ করতে পারেন ও ফর্ম ভরতে পারেন।

Paromita Das
Paromita Das
With a penchant for reading, writing and asking questions, Paromita joined the fight to combat and spread awareness about fake news. Fact-checking is about research and asking questions, and that is what she loves to do.
Paromita Das
Paromita Das
With a penchant for reading, writing and asking questions, Paromita joined the fight to combat and spread awareness about fake news. Fact-checking is about research and asking questions, and that is what she loves to do.

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Most Popular