বৃহস্পতিবার, মে 30, 2024
বৃহস্পতিবার, মে 30, 2024

HomeFact CheckFact Check: এলপিজি সিলিন্ডার বাবদ কেন্দ্রের তুলনায় বেশি ট্যাক্স নেয় রাজ্য? জানুন...

Fact Check: এলপিজি সিলিন্ডার বাবদ কেন্দ্রের তুলনায় বেশি ট্যাক্স নেয় রাজ্য? জানুন আসল সত্যি

Claim: রান্নার গ্যাসের সিলিন্ডার বাবদ কেন্দ্রের তুলনায় রাজ্য সরকার বেশি ট্যাক্স বা কর নেয়।

Fact: ভাইরাল পোস্ট কার্ডটি ভুয়ো। রান্নার গ্যাসের সিলিন্ডার বাবদ কেন্দ্রের তুলনায় রাজ্য সরকার বেশি ট্যাক্স বা কর নেয় না। দুপক্ষই সমান সমান কর নেয়।

রান্নার গ্যাসের দাম নিয়ে কেন্দ্রের বিজেপি সরকারকে বারবার আক্রমণ শানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্য়োপাধ্যায়। এরপর দেখা যায়,  ভোটের আগে রান্নার গ্যাসের দাম কমিয়েছে কেন্দ্র। ভোট বাজারে রান্নার গ্যাস যখন অন্যতম একটা ইস্যু। সেই সময় সোশ্য়াল মিডিয়ায় একটি পোস্টকার্ড বেশ ভাইরাল হয়েছে। যাতে একটি তালিকা দিয়ে দাবি করা হয়েছে, “গ্যাস কার কোষাগারে কত ঢোকে…বেসিক দাম………… ৪৯৫.০০, কেন্দ্রীয় সরকারের কর… ২৪.৭৫, পরিবহণ.. ১০.০০, রাজ্য সরকারের, কর… ২৯১.৩৬, রাজ্যের পরিবহণ… ১৫,০০, ডিলারের কমিশন….. ৫.৫০, ভর্তুকি মূল……………….. ১৯.৫৭- ব্যবহারকারীর প্রদেয়… ৮৬১.১৮ এর পরেও কি রাজ্য সরকারে কথা বলা সাজে?” (পোস্টের বানান অপরিবর্তিত) (আর্কাইভ লিঙ্ক)

একই পোস্টকার্ড ফেসবুকে পোস্ট করে আরও একজন লিখেছেন, “আসুন গ্যাসের সত্য তথ্য জানি। যারা চিৎকার করে বলে গ্যাসের দাম কমাও, তারা তারা জনগণের কিভাবে ঠকাই দেখুন।” (আর্কাইভ লিঙ্ক)

Fact Check/ Verification

এই বিষযে তদন্তের শুরুতেই আমারা জানার চেষ্টা করি যে রান্নার গ্যাসের উপর কেন্দ্র ও রাজ্যের করের হার কেমন। ইন্টারনেটে কিওয়ার্ড সার্চ করে অর্থমন্ত্রকের অধীনস্থ Centra Board Of Indirect Taxes and Customs Goods and Services Tax ওয়েবসাইটটি আমরা খুঁজে পাই।  ওই ওয়েবসাইটে দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে জানা যায় যে, লিকুয়িফায়েড পেট্রোলিয়াম গ্যাসের (এলপিজি) উপর ৫ শতাংশ গুডস অ্যান্ড সার্ভিসেস ট্যাক্স বা কর (GST) নেওয়া হয়। এর মধ্যে কেন্দ্র ও রাজ্যের ভাঁড়ারে যথাক্রমে আড়াই শতাংশ করে কর ঢোকে। অর্থাৎ দু’পক্ষই সমান কর পায়। 

ভারত সরকারের পেট্রোলিয়াম ও ন্যাচারাল গ্যাস মন্ত্রকের অধীনস্থ  Petroleum Planing & Analysis Cell ওয়েবসাইটে দেওয়া তথ্য থেকেও এই একই বিষয় জানা যায়। সেখানেও উল্লেখ রয়েছে যে রান্নার গ্যাসের উপর সমান সমান অর্থাৎ আড়াই শতাংশ করে মোট পাঁচ শতাংশ কর নেওয়া হয়। 

এরপর গ্যাসের একটি আসল স্লিপ দেখলে বিষয়টা আরও স্পষ্ট হয়ে যায়। চলতি বছরের মার্চ মাস নেওয়া গ্যাসের ওই স্লিপে উল্লেখ রয়েছে যে, সিলিন্ডারের বেসিক দাম ৭৮৯ টাকা ৫২ পয়সা, কেন্দ্র ও রাজ্য উভয়ই ২.৫ শতাংশ করে সমান জিএসটি পেলে, তা হয় ১৯ টাকা ৭৪ পয়সা করে। অর্থাৎ ১৪.২ কেজির একটি ভর্তি এলপিজি সিলিন্ডারের জন্য গ্রাহককে মোট খরচ করতে হচ্ছে ৮২৯ টাকা। 

ডিলারের কমিশন কত?

ভাইরাল ওই পোস্টকার্ডে ডিলারের কমিশন দেখানো হয়েছে ৫ টাকা ৫০ পয়সা। ২০২৩ সালের ৪ অক্টোবরে কেন্দ্রের তরফে প্রকাশিত সার্কুলার অনুযায়ী, ডিস্ট্রিবিউটরদের কমিশন ৭৩ টাকা ৮ পয়সা করা হয়েছিল। ভারত সরকারের পেট্রোলিয়াম ও ন্যাচারাল গ্যাস মন্ত্রকের অধীনস্থ  Petroleum Planing & Analysis Cell ওয়েবসাইটের তথ্য সেটাই বলছে। 

Live Mint, The Hindu TV9 Hindi ওয়েবসাইটের তথ্য অন্তত তেমনটাই বলছে।

Conclusion

সুতরাং এখন আর বলার অপেক্ষা রাখে না যে, ভাইরাল পোস্ট কার্ডটি ভুয়ো। রান্নার গ্যাসের সিলিন্ডার বাবদ কেন্দ্রের তুলনায় রাজ্য সরকার বেশি ট্যাক্স বা কর নেয় না। দুপক্ষই সমান সমান কর নেয়।

Result: False

Source
Report by Petroleum Planing & Analysis Cell
Report by Centra Board Of Indirect Taxes and Customs Goods and Services Tax

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Most Popular