শনিবার, জুলাই 20, 2024
শনিবার, জুলাই 20, 2024

HomeFact CheckFact Check: কর্ণাটকের হিজাব ব্যান করা বিজেপি মন্ত্রীর বিরুদ্ধে হিন্দু ভোট পেয়ে...

Fact Check: কর্ণাটকের হিজাব ব্যান করা বিজেপি মন্ত্রীর বিরুদ্ধে হিন্দু ভোট পেয়ে জয়ী হয়েছেন কংগ্রেসের ফাতিমা? 

Authors

With a penchant for reading, writing and asking questions, Paromita joined the fight to combat and spread awareness about fake news. Fact-checking is about research and asking questions, and that is what she loves to do.

Claim: কর্ণাটকের কংগ্রেস প্রার্থী কানিজ ফাতিমা শিক্ষামন্ত্রীর বিরুদ্ধে হিন্দুদের ভোটে জিতেছেন 
Fact: দাবিটি ভুল, ফাতিমার বিরুদ্ধে কর্ণাটকের শিক্ষামন্ত্রী প্রার্থী ছিলেন না 

কর্ণাটকের নির্বাচনকে কেন্দ্র করে ফের একটি দাবি সোশ্যাল মিডিয়াতে ভাইরাল হয়েছে, যেখান বলা হচ্ছে কর্ণাটকের হিজাব ব্যান করা বিজেপি মন্ত্রীর বিরুদ্ধে হিন্দু ভোট পেয়ে জয়ী হয়েছেন কংগ্রেসের প্রার্থী ফাতিমা। ফাতিমার ছবি শেয়ার করে আরো বলা হয়েছে কর্ণাটকের শিক্ষামন্ত্রী হিজাব নিষিদ্ধ করেছিলেন, ওনার বিরুদ্ধে হিজাব পরিহিত কানিজ ফাতিমা কংগ্রেসের প্রার্থী হয়েছে নির্বাচনে দাঁড়িয়ে ৯১% হিন্দু ভোটে জিতেছেন।  

কর্ণাটকের হিজাব ব্যান করা বিজেপি মন্ত্রীর image 1
Courtesy: Facebook/ asfakaswi
কর্ণাটকের হিজাব ব্যান করা বিজেপি মন্ত্রীর image 2
Courtesy: Facebook/saibul.shaikh.37

Fact check / Verification 

কর্ণাটকের হিজাব ব্যান করা বিজেপি মন্ত্রীর বিরুদ্ধে হিন্দু ভোট পেয়ে জয়ী হয়েছেন কংগ্রেসের ফাতিমা গুরুত্বপূর্ণ এই দাবিটির সত্যতা যাচাই করার সময় আমরা যে তথ্য পাই তাতে প্রমান হয়েছে এই দাবিটি ভুল। 

আমরা প্রথমে গুগলে ফাতিমা কর্ণাটকের কোন কেন্দ্রের থেকে প্রার্থী রূপে দাঁড়িয়েছিলেন। The Siasat Dailyর ১৩ই মের রিপোর্টে বলা হয়েছে কর্ণাটকের কংগ্রেস প্রার্থী কানিজ ফাতিমার জয় প্রশংসনীয়। ২০২১ সালে যখন বিজেপি সরকার যখন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে হিজাব নিষিদ্ধ করেছিল, তখন এই ফাতিমাও এই নিষেধাজ্ঞার বিরোধিতা করেছিলেন। এখানে বলা হয়েছে ফাতিমা উত্তর গুলবার্গের কংগ্রেসের প্রার্থী ছিলেন যেখানে ওনার বিরুদ্ধে বিজেপির প্রার্থী ছিলেন, চন্দ্রকান্ত বি পাটিল। জানিয়ে রাখি কর্ণাটকের শিক্ষামন্ত্রী ছিলেন বি সি নাগেশ। 

কর্ণাটকের হিজাব ব্যান করা বিজেপি মন্ত্রীর image 3
Screenshot from The Siasat Daily

অর্থাৎ, কর্ণাটকের বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপি প্রার্থী, যিনি ওই রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রীও ওনার বিরুদ্ধে কংগ্রেসের  ফাতিমা জয় হয়েছেন এই দাবিটি ভুল। 

নির্বাচন কমিশনের ওয়েবসাইট থেকে আমরা উত্তর গুলবার্গের কংগ্রেস ও বিজেপি প্রার্থীদের নাম পাই। ভারতীয় জনতা পার্টির প্রার্থী ছিলেন বছর ৪২এর চন্দ্রকান্ত বি পাটিল। অন্যদিকে কোন ওই এলাকার কংগ্রেসের প্রার্থী ছিলেন ৬২ বছরের কানিজ ফাতিমা। চন্দ্ৰকান্তকে ২৭১২ ভোটে পরাজিত করেছেন ফাতিমা। ২০১৮ সালেও ফাতিমা উত্তর গুলবার্গের এই আসনটি জিতেছিলেন। তারই পুনরাবৃত্তি হলো ২০২৩ এর বিধানসভা নির্বাচনে। 

আমরা ফাতিমার সাথে যোগাযোগ করে জানতে পারি তিনি যে কেন্দ্রের প্রার্থী ছিলেন শেখ হিন্দু ভোটারের সংখ্যা বেশি ছিল, এই দাবিটি সঠিক না। হিন্দু মুসলিম উভয় পক্ষের ভোট পেয়েই তিনি জিতেছেন। তিনি ওনার বিপক্ষ থাকা প্রার্থীর নামও জানিয়েছেন, চন্দ্রকান্ত বি পাটিল।

The Hindu র একটি প্রতিবেদন পাই যেখানে বলা হয়েছে গুলবার্গ ২২৪টি কেন্দ্রে বিভক্ত যেখান মূলত মুসলিম ও দলিতদের আধিক্য বেশি। এখানে মোট ভোটারের সংখ্যা ২৪২৭৩৬, পুরুষ ১২১৭৩১ জন ও মহিলাদের সংখ্যা ১২০৯৭২। অর্থাৎ ফাতিমা হিন্দুদের ভোটে জয়ী হয়েছেন এই দাবিটিও মিথ্যা। 

কর্ণাটকের শিক্ষামন্ত্রী বি সি নাগেশ দাঁড়িয়েছিলেন টিপটুর থেকে। ওনার বিপক্ষে ছিলেন কংগ্রেসের কে সদ্যাক্ষরী। ১৭,৬৫২ ভোটে পরাজিত হয়েছেন বিজেপির প্রার্থী ও শিক্ষামন্ত্রী বি সি নাগেশ। ২০১৮ সালে ২৫,৫৬৩ ভোটে টিপটুরের আসন জিতেছিলেন বি সি নাগেশ। অন্য দিকে ২০১৩ সালে ১১,৫৬৩ ভোটে জিতে কংগ্রেসরে বিধায়ক হন সদ্যাক্ষরী। 

কর্ণাটকের হিজাব ব্যান করা বিজেপি মন্ত্রীর image 4

Conclusion

আমাদের অনুসন্ধানে প্রমাণিত হয়েছে ফেসবুকে ভাইরাল দাবি কর্ণাটকের হিজাব ব্যান করা বিজেপি মন্ত্রীর বিরুদ্ধে হিন্দু ভোট পেয়ে জয়ী হয়েছেন কংগ্রেসের ফাতিমা দাবিটি ভুল। ফাতিমার বিপক্ষে কর্ণাটকের শিক্ষামন্ত্রী প্রার্থী ছিলেন না। 

Result: False 

Our Sources
Election Commission Of India 
The Daily Siasat report published on 13 May 2023
The Quint report from 13 May 2023
Conversation with Fatima


সন্দেহজনক কোনো খবর ও তথ্য সম্পর্কে আপনার প্রতিক্রিয়া জানাতে অথবা সত্যতা জানতে আমাদের লিখে পাঠান checkthis@newschecker.in অথবা whatsapp করুন- 9999499044 এই নম্বরে। এছাড়াও আমাদের সাথে Contact Us -র মাধ্যমে যোগাযোগ করতে পারেন ও ফর্ম ভরতে পারেন।

Authors

With a penchant for reading, writing and asking questions, Paromita joined the fight to combat and spread awareness about fake news. Fact-checking is about research and asking questions, and that is what she loves to do.

Paromita Das
Paromita Das
With a penchant for reading, writing and asking questions, Paromita joined the fight to combat and spread awareness about fake news. Fact-checking is about research and asking questions, and that is what she loves to do.

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Most Popular