সোমবার, মে 20, 2024
সোমবার, মে 20, 2024

HomeFact CheckFact Check: বিজেপি প্রার্থী অসীম সরকারের ‘বিতর্কিত’ ভাইরাল ভিডিয়োটি পুরনো, লোকসভা ভোটের...

Fact Check: বিজেপি প্রার্থী অসীম সরকারের ‘বিতর্কিত’ ভাইরাল ভিডিয়োটি পুরনো, লোকসভা ভোটের সঙ্গে কোনও যোগ নেই

Claim: বর্ধমান পূর্বের ভোটারদের অশালীন ভাষায় হুমকি অসীম সরকারের।

Fact: ভিডিয়োটা প্রায় ২০২২ সালে থেকে ইন্টারনেটে রয়েছে। অর্থাৎ আসন্ন লোকসভা নির্বাচনের সঙ্গে ভাইরাল ভিডিয়োটির কোনও যোগ নেই। 

বর্ধমান পূর্ব লোকসভা আসন থেকে হরিনঘাটার বিধায়ক অসীম সরকারকে প্রার্থী করেছে বিজেপি। ইতিমধ্যে ভোট প্রচারও শুরু করে দিয়েছেন তিনি। এরই মধ্যে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল অসীম সরকারের একটি ভিডিয়ো।

যেখানে তাঁকে গাড়িতে চালকের পাশের আসনে বসে অশ্রাব্য ভাষায় কথা বলতে এবং কটূক্তি করতে শোনা যাচ্ছে। ভিডিয়োটি ফেসবুকে পোস্ট করে একজন লিখেছেন, “বর্ধমান পূর্ব লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী কবি অসীম কুমার সরকারকে ভোট দেওয়ার আগে, তার মুখের ভাষা শুনে নিন, বিজেপিকে ভোট না দিলে সেটা ভেঙে দেবে বলছে”।   

বিজেপি প্রার্থী অসীম সরকার Image 1

Fact Check/ Verification

ভাইরাল ভিডিয়োর একটি কিফ্রেমের রিভার্স ইমেজ সার্চ করলে AITC MINTU

নামের একটি ফেসবুক প্রোফাইলে একই ভিডিয়ো দেখতে পাওয়া যায়। ২০২২ সালের ১৫ জুলাই ভিডিয়োটি পোস্ট করা হয়েছিল এবং তার সঙ্গে লেখা ছিল, “কিভাবে এই বিজেপি সরকার ধর্মীয় রাজনীতি করছেন । হরিণঘাটার বিধায়ক অসীম সরকার বিজেপি সরকার সাধারণ মানুষকে কিভাবে গালাগালি দিচ্ছেন ভোট না দিলে হুমকি দিচ্ছে এই বিজেপি সরকার কিভাবে নোংরা রাজনীতির ভিতরে জড়িত দেখুন দেশকে বাঁচাতে হলে এই বিজেপি কে হঠাতে হবে !” ওই ভিডিয়োতে তৃণমূল নেতা দেবাংশু ভট্টাচার্যকে, অসীম সরকারের বক্তব্যের সমালোচনা করতেও দেখা যায়।

Basirhat District Trinamool Congress team khela hobe -র তরফেও একই ভিডিয়ো একই দিনে পোস্ট করা হয়েছিল।

আরও সার্চ করলে দেখা যায় যে, ওই সময়ে ভাইরাল ভিডিয়োটি নিয়ে মুখ খুলেছিলেন হরিনঘাটার বিজেপি বিধায়ক অসীম সরকারও। তিনি তখন জানিয়েছিলেন যে, ভিডিয়োটি সম্পাদিত বা এডিটেড। সেটা হরিনঘাটার নয়, বরং ওড়িশার পঞ্চায়েত ভোটের প্রচারের। তিনি আরও অভিযোগ করেছিলেন যে, তাঁর বক্তব্যের বেশ কিছু অংশ বাদ দিয়ে ভিডিয়োটি তৈরি করা হয়েছিল। 

তদন্তে উঠে আসে যে, ২০২২ সালের ১৪ জুলাই এই ভাইরাল ভিডিয়ো নিয়ে আনন্দবাজার পত্রিকার ওয়েবসাইটে একটি প্রতিবেদনও প্রকাশ হয়েছিল। ভিডিয়ো প্রসঙ্গে আনন্দবাজারকে অসীম সরকার জানিয়েছিলেন, “বিজেপির তরফ থেকে আমাকে পঞ্চায়েত ভোটের প্রচারে ওড়িশার মালকানগিরিতে পাঠানো হয়েছিল। সেই সময় একটি গ্রাম থেকে অন্য গ্রামে প্রচারে যাওয়ার সময় দু’টি ছেলে বিজেপি দল করেন বলে আমার গাড়িতে উঠেছিলেন, তাঁরাই এই ভিডিয়োটি করেন। এবং অনেক টাকার বিনিময়ে তাঁরা ভিডিয়োটি বিরোধীদের হাতে তুলে দিয়েছেন।”     

সদ্যই সোশ্য়াল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছিল, শান্তনু ঠাকুরকে নিয়ে করা অসীম সরকারের একটি বিতর্কিত অডিও ক্লিপ। লোকসভা ভোটের আবহে সেটা সাম্প্রতিক বলে প্রচার হলেও নিউজ চেকার বাংলা অনুসন্ধান করে প্রমাণ করেছিল যে, আসলে অডিওটি পুরোন। 

ওই অডিও সম্পর্কে নিজের ইউটিউব চ্যানেলে বক্তব্য পেশ করেছেন অসীম সরকার। সেখানে তিনি ভাইরাল এই ভিডিয়োটির প্রসঙ্গ তোলেন এবং জানান যে ভিডিয়োটি পুরনো। একই সঙ্গে রাজ্যের শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেসকেও তোপ দাগেন হরিনঘাটার বিধায়ক। 

Conclusion

ভিডিয়োটি আসলে কোন সময়ের সেটা খুঁজে না পেলেও, তদন্তে উঠে এসেছে যে ভিডিয়োটা প্রায় ২০২২ সালে থেকে ইন্টারনেটে রয়েছে। অর্থাৎ এখন এটা স্পষ্ট যে আসন্ন লোকসভা নির্বাচনের সঙ্গে ভাইরাল ভিডিয়োটির কোনও যোগ নেই। বর্ধমান পূর্বের মানুষদের উদ্দেশে কোনও হুমকি দেননি বিজেপি প্রার্থী।

Result: Missing Context

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Most Popular