রবিবার, জুন 23, 2024
রবিবার, জুন 23, 2024

HomeFact CheckFact Check: পোশাকের জন্য উর্ফি জাভেদকে গ্রেফতার করা হয়নি, ভাইরাল দাবিটি ভুয়ো

Fact Check: পোশাকের জন্য উর্ফি জাভেদকে গ্রেফতার করা হয়নি, ভাইরাল দাবিটি ভুয়ো

Claim
ফ্যাশানের নামে রাস্তাঘাটে অশ্লীলতা ছড়ানোর দায়ে মুম্বাই পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার উরফি জাভেদ

Fact
“আপত্তিকর” পোশাক পরার জন্য উর্ফি জাভেদকে পুলিশ গ্রেফতার করেনি। ভাইরাল হওয়া ওই ভিডিয়োটি নতুন চালু হওয়া একটি পোশাকের ব্র্যান্ডের প্রচারের জন্য পরীক্ষামূলক উপস্থাপনা হিসেবে তৈরি করা হয়েছিল৷ “প্রতারণামূলক” ভিডিও তৈরি করার জন্য দায়ীদের বিরুদ্ধে একটি ফৌজদারি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

সর্বজনীন স্থানে “অদ্ভুত” সাজপোশাক করে ঘোরা বিতর্কিত সোশ্যাল মিডিয়া ইনফ্লুয়েন্সার উর্ফি জাভেদ সমাজমাধ্যমে সর্বদাই স্পটলাইটে থাকেন। তাঁর একটি ভিডিয়ো সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে। এমনকি বেশ কয়েকটি সংবাদ সংস্থা এবং সোশ্য়াল মিডিয়া য়ুজার এই ভিডিয়োটি প্রচার করেছে। ভিডিয়োয় দাবি করা হয়েছে যে প্রকাশ্যে “অশালীন” পোশাক পরার জন্য পুলিশ উর্ফি জাভেদকে গ্রেফতার করেছে। আপনি এখানে ক্লিক করে এই পোষ্টটি দেখতে পারেন।

বেশ কিছু সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহারকারী একই ধরনের দাবি-সহ ভিডিয়োটি পোস্ট করেছেন। তাঁদের মধ্যে কেউ কেউ আবার দাবি করেছেন যে সোশ্যাল মিডিয়া ইনফ্লুয়েন্সার উর্ফিকে ‘জনসমক্ষে অশালীন পোশাক পরার জন্য মুম্বাই পুলিশ গ্রেফতার করেছে’। একই ভিডিয়ো অনেক ফেসবুক ব্যবহারকারী শেয়ার করেছেন। সেগুলি এখানে এবং এখানে ক্লিক করে দেখা যেতে পারে।

অবশ্য, নিউজচেকারের তদন্ত অনুসারে, ভাইরাল ভিডিয়োটি আসলে একটি স্ক্রিপ্টেড ভিডিয়ো ছিল।

Fact Check / Verification

নিউজচেকার ভাইরাল ভিডিয়োটির সত্যতা জানার জন্য অনুসন্ধান শুরু করে। প্রথমেই ভিডিয়োটি খুঁটিয়ে পরীক্ষা করা হয়। সেখানে আমরা দেখতে পাই যে ওই ভিডিওতে পুলিশের দলটি উর্ফি জাভেদকে তুলে নিয়ে যেতে একটি কালো রঙের স্করপিও গাড়ি ব্যবহার করেছিল, যার নম্বর ছিল MH 02 BM 2448।

আমরা অবিলম্বে M Parivahan  অ্যাপে ওই গাড়ির বিষয়ে বিস্তারিত জানতে চাই এবং নিম্নলিখিত তথ্যগুলি লাভ করি।

এরপরে, যখন আমরা গুগলে সার্চ করি, তখন জনপ্রিয় পত্রিকা দৈনিক জাগরণের একটি প্ৰতিবেদন দেখতে পাই। প্রতিবেদন অনুযায়ী, ভাইরাল হওয়া ভিডিয়োটি ভুয়ো। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, উর্ফি জাভেদ তাঁর ইনস্টাগ্রাম হ্যান্ডেলে ভাইরাল ভিডিয়োটির শেষাংশ পোস্ট করেছেন।

খবরে লেখা হয়েছে, শুক্রবার সন্ধ্যায়, উর্ফি জাভেদ তাঁর অফিসিয়াল ইনস্টাগ্রাম হ্যান্ডেলে একটি ভিডিয়ো শেয়ার করেছেন। এই ভিডিওতে উর্ফিকে কারাগারের ভিতরে দেখা যাচ্ছিল। অবশ্য, সেটি কোনও আসল কারাগার নয় এবং অভিনেত্রীও মোটেই কারাবন্দি ছিলেন না। উর্ফি জাভেদের এই ভিডিয়োটি একটি প্রচারমূলক ভিডিয়ো, যেটি উর্ফি একটি বিখ্যাত পোশাক সংস্থার জন্য শ্যুট করেছেন। ওই ভিডিয়োতে উর্ফি জাভেদকে বিভিন্ন ধরনের পোশাকে দেখা গিয়েছে। ওই ভিডিয়ো প্রকাশ্যে আসার পরে, সবাই বুঝতে পেরেছেন যে উর্ফি জাভেদের গ্রেফতারের ভিডিয়োটি সম্পূর্ণ ভুয়ো এবং এটি শুধুমাত্র একটি প্রচারকৌশল।

এবার আমরা সত্য জানতে উৰ্ফি জাভেদের ইনস্টাগ্ৰাম হ্যাণ্ডেল পরীক্ষা করি, যেখানে এই কথার সত্যতা সম্পর্কে আমরা নিশ্চিত হই।

এর পরে, আমরা অনুসন্ধান চালিয়ে মুম্বাই পুলিশের একটি টুইট দেখতে পাই। ওই টুইটে মুম্বাই পুলিশ স্পষ্ট ভাবে বলে দিয়েছে “অশ্লীলতার জন্য একজন মহিলাকে মুম্বাই পুলিশের গ্রেফতার করার ভিডিওটি সত্য নয়। মুম্বাই পুলিশের চিহ্ন এবং ইউনিফর্মের অপব্যবহার করা হয়েছে।” মুম্বাই পুলিশ টুইটে আরও উল্লেখ করেছে যে ওশিওয়ারা থানায় ভারতীয় দণ্ডবিধির 171, 419, 500, 34 ধারার অধীনে ওই বিভ্রান্তিকর ভিডিয়োতে জড়িতদের বিরুদ্ধে একটি ফৌজদারি মামলাও নথিভুক্ত করা হয়েছে। ওই ভুয়ো পুলিশ ইনস্পেক্টরকে গ্রেফতার করা হয়েছে এবং গাড়িটিও বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে।

শীর্ষস্থানীয় সংবাদপত্র দ্য ইকোনমিক টাইমস অনুসারে, ওশিওয়ারা থানায় আইপিসি 171, 419, 500, 34 ধারার অধীনে প্রতারণামূলক ভিডিও তৈরি করার জন্য দায়ীদের বিরুদ্ধে একটি ফৌজদারি মামলা দায়ের করা হয়েছে। আরও তদন্ত চলছে। যে ব্যক্তিকে ভুয়া পরিদর্শক হিসাবে চিত্রিত করা হয়েছিল তাকে আটক করা হয়েছে।

ঘটনার সঙ্গে জড়িত গাড়িটিও জব্দ করা হয়েছে। ধারা 171-এর অন্তর্ভুক্ত “পোশাক পরিধান করা বা প্রতারণামূলক অভিপ্রায়ে একজন সরকারী কর্মচারী দ্বারা ব্যবহৃত একটি টোকেন বহন করা,” যেখানে ধারা 419 ব্যক্তিত্বের মাধ্যমে প্রতারণার সাথে সম্পর্কিত।

Conclusion

আমাদের তদন্তে দেখা গিয়েছে, ভাইরাল ভিডিয়োর উপরের ভিত্তি করে প্রকাশিত সংবাদটি মিথ্যা। উর্ফি জাভেদকে অশালীন পোশাক পরার জন্য মুম্বাই পুলিশ গ্রেফতার করেনি। এবং এই ভিডিওটিও দুবাইয়ের নয়। “প্রতারণামূলক” ভিডিও তৈরি করার জন্য দায়ীদের বিরুদ্ধে একটি ফৌজদারি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

Result : Partly False

Our Sources:
1. Tweet by Mumbai police, dated November 3, 2023
2. Report published by Dainik jagran, Dated November 3, 2023
3. Instagram post by Urfi Javed
4. Report by The Economic Times, Dated November 3, 2023


সন্দেহজনক কোনো খবর ও তথ্য সম্পর্কে আপনার প্রতিক্রিয়া জানাতে অথবা সত্যতা জানতে আমাদের লিখে পাঠান checkthis@newschecker.in অথবা whatsapp করুন- 9999499044 এই নম্বরে। আমাদের whatsapp চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন এখানে ক্লিক করে।এছাড়াও আমাদের সাথে Contact Us -র মাধ্যমে যোগাযোগ করতে পারেন ও ফর্ম ভরতে পারেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Most Popular