শুক্রবার, জুলাই 19, 2024
শুক্রবার, জুলাই 19, 2024

HomeFact CheckFact Check: না, আমেরিকার ভার্জিনিয়ার মসজিদে নামাজে বাঁধা দেন নি কোনো হিন্দু...

Fact Check: না, আমেরিকার ভার্জিনিয়ার মসজিদে নামাজে বাঁধা দেন নি কোনো হিন্দু মহিলা 

Authors

With a penchant for reading, writing and asking questions, Paromita joined the fight to combat and spread awareness about fake news. Fact-checking is about research and asking questions, and that is what she loves to do.

Claim: এক কট্টর হিন্দু মহিলা আমেরিকার ভার্জিনিয়ার মসজিদে নামাজ পড়তে বাঁধা দেয় 
Fact: মহিলাটি হিন্দু নয়, তিনি মুসলিম সম্প্রদায়ের এবং তিনি মানসিক ভাবে অসুস্থ ছিলেন 

ফেসবুকে সম্প্রতি একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে যেখানে এক মহিলাকে পুলিশের সাথে বচসা করতে দেখা যাচ্ছে। ভিডিওটি শেয়ার করে দাবি করা হয়েছে আমেরিকার ভার্জিনিয়ার মসজিদে নামাজে বাঁধা দিয়েছেন হিন্দু মহিলা। মসজিদে নামাজ চলাকালীন তিনি এসে গোলযোগ শুরু করে নামাজে  বাঁধা দেওয়ার চেষ্টা করেন।

আমেরিকার ভার্জিনিয়ার মসজিদে image 1
Courtesy: Facebook/alamgir30
আমেরিকার ভার্জিনিয়ার মসজিদে image 2

ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে মহিলা বেশ রাগের সাথে একজন পুলিশের সাথে কথা বলছেন। পুলিশটি ওনাকে শান্ত করার চেষ্টা করছেন কিস্তু পরিস্থিতি সামলাতে না পারলে অন্য পুলিশ আধিকারিক এসে ওনাকে টেনে মসজিদের বাইরে বের করে আনে। 

একই ভিডিও শেয়ার করে দাবি করা হয়েছে – ‘আমেরিকার বাফেলো স্টেটে ঈদুল ফিতরের খুৎবাহ দেওয়ার সময় মহিলাটি মসজিদের ভিতর প্রবেশ করে বাধাঁ দেয়।’

Fact check / Verification 

আমেরিকার ভার্জিনিয়ার মসজিদে নামাজে বাঁধা দিয়েছেন হিন্দু মহিলা এই দাবিটি ভুল। 

ভিডিওটির দাবির সত্যতা জানার জন্য আমরা কীওয়ার্ড দ্বারা খোঁজার চেষ্টা করি, কিন্তু সঠিক তথ্য পাইনি। এই পর্যায়ে আমরা টুইটার থেকে জানতে পারি যে মসজিদে এই ঘটনাটি ঘটেছে তার নাম – ‘All Dulles Area Muslim Society (Adams) Mosque, Virginia’

ADAMS এর ইনস্টাগ্রাম হ্যান্ডেলে তাদের একটি পোস্ট পাই। ৪দিন আগের এই পোস্টে বলা হয়েছে ‘ ২১শে এপ্রিলের সকালে ভার্জিনিয়ার ADAMS এর নামাজ চলাকালীন মুসলিম সম্প্রদায়ের এক মহিলা মসজিদে ঢুকে পড়েন। তিনি মানসিকভাবে অসুস্থ।কর্তৃপক্ষ ও ADAMS এর সমাজ সেবা পক্ষ থেকে মহিলার পরিবারের সাথে যোগাযোগ করেছে। ওনার পরিবারের তরফ থেকে সকালের নামাজে এহেন অসুবিধার জন্য ক্ষমা চেয়েছে এবং অনুরোধ করেছে যারা এই ভিডিওটিকে সোশ্যাল মিডিয়াতে পোস্ট করেছে তারা যেন তা মুছে দেয়। এতে ওনাদের পরিবারের শান্তি ও সম্মান ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। 

Instagram will load in the frontend.

এই পোস্টটি ছাড়া অন্য কোথাও এই বিষয়টিকে নিয়ে কোনো রিপোর্ট প্রকাশিত হয়েছে কিনা জানার চেষ্টা করি। 

Conclusion 

আমাদের অনুসন্ধানে প্রমাণিত হয়েছে ফেসবুকে ‘আমেরিকার ভার্জিনিয়ার মসজিদে নামাজে বাঁধা দিয়েছেন হিন্দু মহিলা’ ভাইরাল এই দাবিটি সঠিক নয়। দাবিটির সাথে যে মহিলার ভিডিও ভাইরাল হয়েছে তিনি মুসলিম। 

Result: False

Our Sources
Instagram post, April 21, 2023


সন্দেহজনক কোনো খবর ও তথ্য সম্পর্কে আপনার প্রতিক্রিয়া জানাতে অথবা সত্যতা জানতে আমাদের লিখে পাঠান checkthis@newschecker.in অথবা whatsapp করুন- 9999499044 এই নম্বরে। এছাড়াও আমাদের সাথে Contact Us -র মাধ্যমে যোগাযোগ করতে পারেন ও ফর্ম ভরতে পারেন।

Authors

With a penchant for reading, writing and asking questions, Paromita joined the fight to combat and spread awareness about fake news. Fact-checking is about research and asking questions, and that is what she loves to do.

Paromita Das
Paromita Das
With a penchant for reading, writing and asking questions, Paromita joined the fight to combat and spread awareness about fake news. Fact-checking is about research and asking questions, and that is what she loves to do.

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Most Popular