মঙ্গলবার, জুলাই 16, 2024
মঙ্গলবার, জুলাই 16, 2024

HomeFact CheckFact Check: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের লোক সেজে বাড়ি এসে সর্বস্ব লুঠ করছে, ঘটনাটি ভারতের...

Fact Check: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের লোক সেজে বাড়ি এসে সর্বস্ব লুঠ করছে, ঘটনাটি ভারতের নয়, জানুন ভাইরাল বার্তার সত্যতা 

Authors

With a penchant for reading, writing and asking questions, Paromita joined the fight to combat and spread awareness about fake news. Fact-checking is about research and asking questions, and that is what she loves to do.

Claim:স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের অফিসার সেজে বাড়ি এসে আদমশুমারির নামে ঘরবাড়ি লুঠ করছে, কিন্তু সরকার থেকে এমন কিছুই শুরু করেনি 
Fact: বার্তাটি জাল, ভাইরাল বার্তাটি মূলত অন্য দেশের যা ভারতের সাম্প্রতিক কেলেঙ্কারির নামে চলছে 

সম্প্রতি ফেসবুক ও হোয়াট্সঅ্যাপে একটি ভাইরাল বার্তায় বলা হয়েছে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের লোক সেজে বাড়ি এসে সর্বস্ব লুঠ করছে। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের অফিসার সেজে বাড়ি এসে আদমশুমারির নামে আপনার থেকে যাবতীয় তথ্য চাইবে, হাতের ছাপ নেবে। তাদের কাছে আপনি ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের লেটারপ্যাড, বায়োমেট্রিক মেশিন থাকবে। আপনার থেকে তয় নিয়ে তারা আপনার সর্বস্ব লুঠ করে নিয়ে যাবে। 

একই বার্তা আমাদের কাছে হোয়াট্সঅ্যাপেও এসেছে –

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের লোক সেজে image 1

Fact check / Verification 

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের লোক সেজে বাড়ি এসে সর্বস্ব লুঠ করছে, ঘটনাটি ভারতের নয়। সোশ্যাল মিডিয়াতে এই বার্তাটিকে নিয়ে ভুল দাবি করা হচ্ছে। গুগলে ‘Home Affairs Officer Scam’ কথাটি লিখে খোঁজার পর Times Of India র ২০১৯ সালের রিপোর্ট, সিঙ্গাপুর পুলিশের ফেসবুক পোস্ট, ও Department Of Home Affairs এর লিংক পাই। 

Times Of India র ২৭শে মার্চ ২০১৯এর রিপোর্টে বলা হয়েছে –  ইদানিং হোয়াট্সঅ্যাপে একটি মেসেজ ভাইরাল হয়েছে যেখানে লেখা রয়েছে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের অফিসার সেজে বাড়ি এসে আদমশুমারির নামে ঘরবাড়ি লুঠ করছে। নিজেরদের সরকারি আধিকারিক দেখানোর জন্য তারা যাবতীয় প্রমান দেখাবে, এবং পরে আপনার ঘর লুঠে করে নিয়ে যাবে। সরকার এই ধরণের কোনো কর্মীদের পাঠায়নি। এরা মানুষদের সর্বশান্ত করার জন্য করছে। কিন্তু এই বার্তাটির সাথে ভারতের কোনো সম্পর্কই নেই। রিপোর্টে বলা হয়েছে গুগলে অনুসন্ধান করে ২০১৭ সালের দক্ষিণ আফ্রিকার রিপোর্ট সামনে আসে যেখানে উল্লেখ করা হয়েছে ‘Department Of Home Affairs’ এর নাম ভাঙিয়ে কিছুলোক জনসাধারণের বাড়িতে যাবে, তাদের বিশ্বাস অর্জনের চেষ্টা করে তাদের থেকে সব গুরুত্বপূর্ণ তথ্য নিয়ে তাদের লুঠ করছে। এখানে জানিয়ে রাখি আমাদের দেশে ‘Ministry Of Home Affairs’ লেখা হয় কিন্তু এখানে ‘Department Of Home Affairs’ বলা হয়েছে। এখানে আমরা দক্ষিণ আফ্রিকার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের টুইটও পাই। 

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের লোক সেজে image 2
Screenshot from Times Of India

সিঙ্গাপুর পুলিশের ফেসবুক ২০২১ সালের পোস্টেও একই বার্তাকে জাল বলা হয়েছে। পোস্টে বলা হয়েছে Home Affairs Officer সেজে কিছু মানুষ আপনার বাড়িতে উঠে আপনাকে লুঠ করে পালাবে এই বার্তাটি জাল। সিঙ্গাপুর পুলিশ এই বার্তাটিকে নস্যাৎ করে জানিয়েছে ২০১৯ সালের সেপ্টেম্বর থেকেই সারা বিশ্বে এই ধরণের বার্তা ভাইরাল হয়েছে। এটি একটি ভুয়ো বার্তা ছাড়া কিছু নয়। 

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের লোক সেজে image 3

Department Of Home Affairs দক্ষিণ আফ্রিকার ওয়েবসাইট বলা হয়েছে সম্প্রতি একটি দল স্বরাষ্ট্র দপ্তরের নামে বেআইনি ও প্রতারণামূলক কাজ শুরু করেছে। তারা বাড়ি বাড়ি গিয়ে দাবি করছে তাদের স্বরাষ্ট্র দপ্তরের থেকে পাঠানো হয়েছে, এবং বাটসিবি টেকনোলোজি নামের একটি কোম্পানি স্বরাষ্ট্র দপ্তরের থেকে টেন্ডার পেয়েছে। আপনার তথ্য তারা চাইবে।কিন্তু এমন কোনো ঘটনাই ঘটেনি। এই প্রতারণার ফাঁদে পা দিতে সরকার থেকে জনসাধারণকে অবগত করা হচ্ছে। এখানে আমরা জাল ফর্মটিকেও দেখি যা Department Of Home Affairs নামে ছড়িয়েছে। 

আমাদের প্রতিনিধি প্রসাদ মুম্বাই সাইবার ক্রাইম ব্রাঞ্চের সাথে যোগাযোগ করে এই বার্তাটির জানানো পরে ক্রাইম ব্রাঞ্চ জানায় এই ধরণের কোনো প্রতারণার কোনো রিপোর্ট এখনো যদিও জমা পড়েনি। ১৯৩০ নম্বরে ফোন করে সাইবার ক্রাইম সংক্রান্ত দাবি জানাতে পারেন।

অর্থাৎ দক্ষিণ আফ্রিকার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের নামে প্রতারণার বার্তা ভুল দাবি সমেত এখানে ছড়িয়েছে। 

Conclusion 

আমাদের অনুসন্ধানে প্রমাণিত হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়াতে ভাইরাল বার্তা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের লোক সেজে বাড়ি এসে সর্বস্ব লুঠ করছে এটি আসলে দক্ষিণ আফ্রিকার ঘটনা। 

Result: False 

Our Sources
Times of India report, 27 March 2019
Singapore Police Force Facebook post, 8 Nov 2021
Home Affaris South Africa‘s tweet 20 Oct 2017


সন্দেহজনক কোনো খবর ও তথ্য সম্পর্কে আপনার প্রতিক্রিয়া জানাতে অথবা সত্যতা জানতে আমাদের লিখে পাঠান checkthis@newschecker.in অথবা whatsapp করুন- 9999499044 এই নম্বরে। এছাড়াও আমাদের সাথে Contact Us -র মাধ্যমে যোগাযোগ করতে পারেন ও ফর্ম ভরতে পারেন।

Authors

With a penchant for reading, writing and asking questions, Paromita joined the fight to combat and spread awareness about fake news. Fact-checking is about research and asking questions, and that is what she loves to do.

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Most Popular